Short Review (Books)

গদ্যসংগ্রহ ১ ও ২

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

  • গদ্যসংগ্রহ ১ ও ২ 

    সম্পা: রঞ্জন মিত্র ও শমীক বন্দ্যোপাধ্যায়

    দে’জ পাবলিশিং । কল-৭৩ । দু’খণ্ড একত্রে ১২০০.০০

    অভিনেতার লেখকসত্তা

    সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের স্মরণীয় অভিনয়ের পাশাপাশি তাঁর কবিতা বা রচিত নাটক মানুষের কাছে যথেষ্ট আগ্রহের বিষয়। ইন্টেলেকচুয়াল শিক্ষিত রুচিমান বাঙালির প্রায় এক আর্কিটাইপ হয়ে উঠতে পেরেছেন সৌমিত্র। চলচ্চিত্রে বা মঞ্চে অভিনয় ছাড়াও তিনি সুলেখক। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের কবিতাসমগ্র এবং নাটকসমগ্র আগেই প্রকাশিত হয়েছে, এবার পাঠক পড়তে পারবেন তাঁর সমগ্র গদ্যরচনাগুলি। সেই গদ্যের সংখ্যা নেহাত কম নয়, প্রায় হাজার পৃষ্ঠার আয়তনে দু’খণ্ডে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর ‘গদ্যসংগ্রহ’, রঞ্জন মিত্র ও শমীক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পাদনায়। বইটির প্রথম খণ্ডের একেবারে প্রথম লেখাটিতেই সৌমিত্র অকপটে জানিয়েছেন, ‘আমি স্কলার বা পণ্ডিত নই, তাত্ত্বিকও নই। তাই সুশৃঙ্খল বিদ্যাভ্যাসের যে সুফল তা আমার আয়ত্তগত নয়।’ আমাদের ধারণা, স্কলার নন বলেই, তাঁর লেখা স্বতশ্চল, স্বচ্ছন্দ এবং বিচিত্রগামী। গদ্যসংগ্রহের অধ্যায়-শিরোনাম থেকেই অবশ্য তা স্পষ্ট হয় ‘বই পড়া থেকে লেখালিখি’, ‘রবীন্দ্রনাথ’, ‘শিশিরকুমার’, ‘সত্যজিত্‌ রায়’, ‘অভিনেতা হবার আগে’, ‘আমার অভিনয়জীবন’, ‘বাংলা থিয়েটার’, ‘সিনেমা’, ‘অভিনয়কলা’, ‘চিত্রকলা’, ‘খেলার মাঠে’ ইত্যাদি। সব বিষয়েই লেখকের আগ্রহ এবং পড়াশোনা ঈর্ষনীয়।

    সত্যজিত্‌ রায়, ঋত্বিক ঘটক বা শিশিরকুমার ভাদুড়ি নিয়ে যতখানি স্বচ্ছ সৌমিত্রর লেখা, সেই একই আগ্রহে তিনি লেখেন, ‘বিজয় হাজারের মতো নিখঁুত ব্যাটসম্যান, মানে নির্ভুল ভারতীয় ব্যাটসম্যান আমি দেখেছি বলে মনে হয় না’। রাজনৈতিক বক্তব্যেও অত্যন্ত স্পষ্ট এই লেখক। ২০০৭-এর নন্দীগ্রাম-ঘটনার পর ‘দক্ষিণপন্থী মঞ্চে দাঁড়াইনি, দাঁড়াব না’ শিরোনামে সৌমিত্র লেখেন, ‘...আমি নাকি বর্তমান সি পি আই এম প্রভাবিত বামফ্রন্ট সরকারের দ্বারা প্রভূত পরিমাণে উপকৃত, সুবিধাভোগী। তা আমি সকাল থেকে মধ্যরাত্রি পর্যন্ত প্রবল পরিশ্রমী বৃদ্ধ অভিনেতা, বামফ্রন্ট সরকারের কাছ থেকে কী কী সুবিধা-সুযোগ পাই তা জানি না, বুঝিও না।’

    গদ্যসংগ্রহ বইদু’টি পাঠকের সামনে নানা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে তুলে ধরে।