Home >> Story >> কুমুদ

Kobita

কুমুদ

শাশ্বত বন্দ্যোপাধ্যায়

  • এ বছর মস্ত প্রতিমা করেছে সামন্তপাড়ায়,

    সকাল থেকেই ও-পথে লোক চলেছে দল বেঁধে।

    নতুন জামা পরে বোনেরা তৈরি, আমার তো

    জ্বর আসেনি কাল থেকে, তবু কেন এত ছলছল কের শরৎপৃথিবী?

    পায়ে হেঁটে বাইরে বেরোব না আজ, ইচ্ছে করছে

    অনেক উঁচু থেকে পৃথিবীকে দেখি— গরম হাওয়ার ফানুস

    কিংবা পক্ষীরাজে চড়ে যেমন দেখায়!

    দেখব খুদে খুদে ঘরবাড়ির পাশে রঙিন মণ্ডপ

    কিশোরের হাত থেকে উড়ে যাচ্ছে দস্যি বেলুন

    হাওয়ামিঠাই খেতে খেতে খুনসুটি করছে ওরা— বেলফুল-জুঁইফুল!

    ভাসতে ভাসতে আমি পেরিয়ে যাব সব

    আর আচ্ছন্নদৃষ্টি নয়, নীচে কাচের বারকোশে সাজানো

    ধান, দূর্বা, চন্দনের মতো কল্যাণী পৃথিবী

    আমার মৃত্যুবাসনা তার দু’চোখে কাজল!

    নতুন জুতো পায়ে ফোসকা পড়ায় যে থেমে গেছে মাঝপথে

    আর ‘কই হল’ বলে কেবলই তাড়া দিচ্ছে বান্ধবীদল

    ঝুপ করে নেমে তাকে চড়িয়ে নেব আমার বাতাসযানে

    ফিসফিস করে তাকে, হ্যাঁ শুধু তাকেই জানাব—

    আমার মনখারাপ খুব, কেন না এই শরতে

    কোনও গাঁয়ে কোন খালে-বিলে তুমি ফুটতে চলে গেছ

    আমাকে তার সন্ধান বলোনি...

    অঙ্কন: রৌদ্র মিত্র

You may like